হজ্বেও যৌন হয়রানির শিকার তরুণী

ছাড়পত্র ডেস্ক

প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ০৮, ২০১৮

সম্প্রতি হজ্ব পালনে গিয়ে মুসলিমদের পবিত্র তীর্থস্থান মক্কার কা`বা শরীফে যৌন হয়রানির মুখোমুখি হন পাকিস্তানি এক তরুণী সাবিকা খান, নিজের ফেসবুক ওয়ালে এ অভিজ্ঞতার কথা বলেন তিনি। ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাত হানতে পারে , এমন বক্তব্য দিয়ে শুরু করেন কথাগুলো , এর বাংলায়ন করেছেন সঙ্গিতা শবনম। 

"অামি ভীত ছিলাম ঘটনাটি প্রকাশ করতে কারণ এটি হয়তো অাপনার ধর্মীয় অনুভূতিতে অাঘাত হানতে পারে। এশার নামাজের পর ক্বাবার চারপাশে তাওয়াফ করছিলাম, হঠাৎ অদ্ভুত কিছু ঘটে গেল। এটি ছিল তৃতীয় তাওয়াফ, অামার কোমরে একটি হাত অনুভব করলাম। ভেবেছি এটি হয়তো অসতর্কতাবশত,ব্যাপারটিকে পুরোপুরি ইগ্নোর করলাম। অতঃপর পুনরায় অনুভব করলাম। সামনের দিগে অগ্রসর হচ্ছিলাম। ষষ্ঠ তাওয়াফের সময় অনুভব করলাম কেউ একজন খুব শক্ত করে অামার নিতম্ব টিপে দিল। অামি ভাবছিলাম এটি কি অসতর্কতাবশত ছিল কিনা! সামনের দিগে অগ্রসর হচ্ছিলাম কারণ প্রচুর হাজীর সমাগম হয়েছে। পিছনে ফেরার চেষ্টা করেও ব্যার্থ হলাম। ইয়েমেনি কর্ণারে এসে পৌঁছানোর পর কেউ একজন অামার নিতম্বে হাত দেওয়ার চেষ্টা করে এবং একটি চিমটি কাটে। অামি মুখফুটে কিছু বলতে পারছিলামনা কারণ অামি জানি কেউ অামাকে বিশ্বাস করবেনা অামার মা ব্যাতিত। মাকে ঘটনাটি বলার পর তিনি কনফিউজড এবং ডিভাস্টেটেড হয়ে গেলেন। তিনি অামাকে অার সেখানে যেতে দেননি। অামি যৌনহয়রানির স্বীকার হয়েছি একবার নয়, দুইবার নয় বরং তিন-তিনবার। এটি খুবই দুঃখজন অাপনি ক্বাবা শরীফে এসেও নিরাপদ নন। ক্বাবা শরীফে অামার অভিজ্ঞতা ছিল সম্পুর্ণ ম্লান। যৌনহয়রানির অভিজ্ঞাতা প্রকাশের মধ্যে লজ্জার কিছু নেই। জানিনা অাপনাদের অার কারো একিরকমের অভিজ্ঞতা হয়েছে কিনা। অামার সাথে ক্বাবা শরীফে যা ঘটেছে তাতে অামি হতাশ। (Sabica Khan এর ফেইসবুক ওয়াল থেকে সংগৃহীত)

ইংরেজি থেকে বাংলা অনুবাদ: সঙ্গীতা শবনম 

ধারাবাহিক