পিরামিডে বিস্ময়কর চিত্রলিপি

পাপিয়া জেরীন

প্রকাশিত : মে ২৩, ২০১৮

মিশরের Abydos, সেখানে একটা পিরামিডে সমাধির দেয়ালে প্রাচীন চিত্রলিপি দেখে যে কেউই অবাক হবে। দুই থেকে তিন হাজার বছর আগের এই চিত্রফলকে কী আছে দেখেন— হেলিকপ্টার ও সাবমেরিনসহ আরও অদ্ভুত কিছু এয়ারক্রাফট। কেমন করে সম্ভব এইটা!

তিন হাজার বছর আগের মানুষ আমাদের আধুনিক প্রযুক্তির বিষয়ে কেমন করে জানলো! সবাই ভাবতেছে. বিষয়টা অলৌকিক। প্রত্নতত্ত্ববিদরা এইটা নিয়া গবেষণা করতেছেন। তা করুক। তবে বিষয়টা নিয়া আমি আমার মতো করে ভাবলাম। আমার কেন জানি মনে হয়, সভ্যতার চরম উৎকর্ষের পর একটা পতন আসে।

পতনের কারণ হলো অবিবেচনা। প্রযুক্তির গড্ডালিকা প্রবাহে গা ভাসায়ে দেয়াটাই আমাদের অবিবেচনা। হয়তো এমনি `প্রযুক্তি` নামের একটা সুরঙ্গ বারবার আগায়ে দিতেছে মানুষরে ধ্বংসের মুখে। সবুজ গাছ নিধন, ক্লোরোফ্লোরো নির্গমন, অস্ত্রস্ফীতি, অমানবিক ধ্বংসযজ্ঞ (প্রাণ-প্রকৃতির)... এই সব অবলোপের বার্তা নিয়া আসছে `প্রযুক্তি`।

হাজার হাজার বছর আগের এই পিরামিডে আঁকা প্রগতির প্রতীক বলতেছে— আমরা ভুলে ভরা সেই সাপলুডু খেলতেছি বারবার। অস্ত্রবিরতিতে ব্যবহার করতেছি অস্ত্র, সন্ত্রাস দমনে ব্যবহার করতেছি সন্ত্রাসী কার্যক্রম, শান্তির বারতায় পুড়তেছে আমাদের অশান্ত জনপদ, মানবতার কল্যাণে চলতেছে জেনোসাইড।

ধারাবাহিক