শিমুল বাশারের গদ্য ও কবিতা

প্রকাশিত : অক্টোবর ০৬, ২০১৯

ঝিরিঝিরি বৃষ্টি বাতাসে লালমাটিয়ার চিরচেনা গলিপথে নিজেকে হারিয়ে ফেললাম। ঘরে ফিরতে হবে। রাত বাড়ছে। ম্রিয়মাণ হয়ে আসা ছোপ ছোপ আলোর দিকে চেয়ে পায়ের নিয়তি হয়ে এগিয়ে যাচ্ছি আমি কিংবা পদে পদে যাচ্ছি পিছিয়ে।

আকাশের দিকে উঠে যাওয়া দলবাঁধা ভবনগুলো কোলাহল বুকে নিয়ে আজ কিছুটা থমকে আছে যেন। আলো-আঁধারে আলাদা করে আর চেনা যাচ্ছে না বাড়িঘর। প্রতিটি ভবনের একটি দুটি ফ্লোরে এখনো আলো জ্বলছে। জানালার পাশে একাকিত্ব আঁকড়ে দাঁড়িয়ে আছে ছায়া মানবীরা। এমন বিভ্রমের কালে কোন ঘরে ওঠবো আমি!

গলি শেষে বৃষ্টি ভেজা নদী
বুকের ভেতর জলপিপিটা ভাসছে নিরবধি।
নদীর নাম সুগন্ধা হয় যদি
ঢেউয়ে ঢেউয়ে লিখে রেখো
লক্ষীন্দরের স্মৃতি।

উড়ু মেঘ চোখের কাজলে
চেনা চেনা নিকেতন ছেড়ে
বিরহপীড়িত বেহুলা গিয়েছে চলে।
কোনোদিন হারাবো না বলে
সুগন্ধার বহমান জলে
কুহকি ক্যাসিওপিয়া কাঁপে ঘোর বিভ্রমের কালে।

ঠিকানা তবু পেয়েছি আজ সুগন্ধা নদীর ধারে
অপরূপ মীন কাটছে সাঁতার মাথার ভেতরে।

৬ অক্টোবর, ২০১৯

ধারাবাহিক