করোনা আপডেট
আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ ৪০৩২১ ৮৪২৫ ৫৫৯
বিশ্বব্যাপী ৫৮৬৫৯২৩ ২৫৬৯৪১২ ৩৬০৩৪৬

দিলীপ ঘোষের নাম মুখে আনতে লজ্জা লাগে মমতার

ছাড়পত্র ডেস্ক

প্রকাশিত : জানুয়ারি ১৪, ২০২০

পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির সভাপতি দিলীপ ঘোষের নাম মুখে আনতে লজ্জা লাগে বলে জানিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ও তৃণমূল কংগ্রেস নেত্রী মমতা ব্যানার্জি। সোমবার ধর্মতলায় তৃণমূল ছাত্র পরিষদের ধরনায় হাজির হয়ে তিনি একথা জানান।

মমতা বলেন, “আপনার নাম বলতে লজ্জা লাগে। নেতা হয়ে গুলি করার কথা বলেন! আপনি বলছেন গুলি করে মারতে। এটাই তো চাইছেন, কিছু হলে কিন্তু দায়িত্ব আপনাকেই নিতে হবে না।”

মমতা আরো বলেন, “বিজেপির সঙ্গে বাম-কংগ্রেসের কোনো পার্থক্য নেই। নাগরিকত্ব সংশোধনী আইনের বিরুদ্ধে আমরা একাই আন্দোলন করব। একাই পথে নামব। যে যেখানে শক্তিশালী সেখানে রাস্তায় নামুন। পশ্চিমবঙ্গে আমরা আন্দোলনে আছি, আন্দোলন চলবে। আমার বাম-কংগ্রেসকে প্রয়োজন নেই।”

এর আগে রোববার পশ্চিমবঙ্গ বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ রানাঘাটে সিএএ বিরোধীদের হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, “প্রয়োজনে তাদের শেষ করে দিতে হবে। যারা সরকারি সম্পত্তি ধ্বংস করছে তাদের কর্ণাটক, উত্তরপ্রদেশ ও আসামের মতো গুলি করে মারা হবে।”

তার এই বক্তব্যে তোলপাড় শুরু হয় ভারতজুড়ে। এ বক্তব্যের জবাবে মমতা জানান, কিছু হলে এর দায় বিজেপি নেতাকেই নিতে হবে।

আন্দোলনকারীদের উদ্দেশে মমতা বলেন, “কিছু মানুষ শুধু সংবাদমাধ্যমে নাম তোলার জন্য সিএএ বিরোধী আন্দোলনে হিংসা ছড়াচ্ছে। বাস-ট্রেনে আগুন জ্বালাচ্ছে। তৃণমূল ছাত্র পরিষদের সদস্যদের হিংসা থেকে দূরে থেকে মানুষের হয়ে কাজ করতে হবে।”

উল্লেখ্য, মুসলিম বিদ্বেষী নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন নিয়ে ভারতের বিভিন্ন অঙ্গরাজ্যে বিক্ষোভ চলছে। দুটি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের ওপর রাতের আঁধারে হামলা হয়েছে। জামেয়া মিলিয়ায় হামলার পর সম্প্রতি জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়েও বিক্ষুব্ধদের ওপর হামলা হয়েছে। এতে ছাত্র-শিক্ষক মিলিয়ে আহত হয় অন্তত ৪২ জন।