করোনা আপডেট
আক্রান্ত সুস্থ মৃত
বাংলাদেশ ৫৪৬৮০১ ৪৯৭৭৯৭ ৮৪১৬
বিশ্বব্যাপী ১১৪৭৩৮৫৮২ ৯০২৯৪৯২৯ ২৫৪৪২৫২

মেলায় আবু সাঈদ ওবায়দুল্লাহর ‘নতুন পাণ্ডুলিপির দিনে’

ছাড়পত্র ডেস্ক

প্রকাশিত : ফেব্রুয়ারি ২৩, ২০২০

অমর একুশে গ্রন্থমেলায় বৈভব থেকে বেরিয়েছে আবু সাঈদ ওবায়দুল্লাহর কবিতার বই ‘নতুন পাণ্ডুলিপির দিনে’। বইটির প্রচ্ছদ এঁকেছেন ধ্রুব এষ। দাম ২১০ টাকা। বইমেলায় বৈভবের ৭১৮ নম্বর স্টলে মিলছে ‘নতুন পাণ্ডুলিপির দিনে’।

‘নতুন পাণ্ডুলিপির দিনে’ বিষয়ে কবি বলেন, “প্রায় তিন বছর ধরে লেখা কবিতা নিয়ে আমার এ কবিতার বইটি। এতে মোট ৪৯টি কবিতা আছে। শুরু থেকেই আমার কবিতার থিম— কেন্দ্রচ্যুত মানুষের বিচূর্ণ অনুভূতি, জীবন-মৃত্যু, স্বপ্ন ও বাস্তবতার অসমাপ্ত ভ্রমণ। তাই আমার কবিতা বহুস্তর বিশিষ্ট। সেই সূত্রে আমার কবিতাকে কেউ কেউ কখনো বিমূর্ত বা পরাবাস্তবতার টেক্সচারে রচিত বলে মনে করতে পারেন। আসলে কিন্তু তা নয়।”

আবু সাঈদ ওবায়দুল্লাহ আরো বলেন, “ভাষা আমার কাছে শুধুমাত্র অতি সরল রৈখিক বা অ্যাবসার্ড চিন্তাভাবনা প্রকাশের বাহন নয়, খেলাও নয়। ভাষা আমার কাছে আমার নিজস্ব ইতিহাস, ঐতিহ্য, সমাজ, মানুষ ও রাজনীতির মধ্যে একটা সংশ্লেষণের টুল। হয়তো সেখান থেকেই আমার কবিতায় যুগপৎ বিস্ময় আর বেদনাবোধের একটি চিকন স্রোত লক্ষ্য করা যায়। এই বইটিও তার ব্যতিক্রম নয়।”

নিজের রচিত কবিতা বিষয়ে বলেন, “আমার কবিতা ডিপ ইমেজেরি, চকিত ইশারা, ভাবনার বিচিত্র রূপ ও রসে ক্রীড়ারত। তাই ছন্দটা মূলত দেহ-ছন্দ, কবিতা আপনিতেই দোলায়িত। অবশ্য অক্ষরবৃত্ত ছন্দে লিখিত কিছু কবিতার সাথে, এই প্রথমবারের মতো আমি কিছু মাত্রাবৃত্তের কবিতা লিখেছি এ বইটিতে।”

উল্লেখ্য, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ইংরেজি সাহিত্যে বিএ অনার্স ও এমএ করা আবু সাঈদ ওবায়দুল্লাহ ১৯৬৫ সালের ৯ সেপ্টেম্বর কিশোরগঞ্জ জেলায় জন্মগ্রহণ করেন। বর্তমানে তিনি অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন। পেশায় সরকারি কলেজের ইংরেজির শিক্ষক।

তার প্রকাশিত বইগুলো হলো— কবিতা: কবিতাসংগ্রহ (মেঘ, ২০১৯), সিজদা ও অন্যান্য ইসরা (চৈতন্য, ২০১৬), ক্রমশ আপেলপাতা বেয়ে (চৈতন্য, ২০১৫), নো ম্যানস জোন পেরিয়ে (শুদ্ধস্বর, ২০১২), জল্লাদ ও মুখোশ বিষয়ক প্ররোচনাগুলি (নিসর্গ, ২০১২), শাদা সন্ত মেঘদল (নিসর্গ, ২০১১), গানের বাহিরে কবিতাগুচ্ছ (নিসর্গ, ২০১০), পলাশী ও পানিপথ (নিসর্গ, ২০০৯), বাল্মীকির মৌনকথন (জুয়েল ইন্টারন্যাশনাল, ১৯৯৬), শীতমৃত্যু ও জলতরঙ্গ (জুয়েল ইন্টারন্যাশনাল, ১৯৯৫); গদ্য: কবিতার ভাষা (চৈতন্য, ২০১৬), গল্প: বন্ধুর মৃত স্ত্রী (মেঘ ২০১৯)।