সাঈফ ইবনে রফিকের ৩ কবিতা

প্রকাশিত : নভেম্বর ০৭, ২০১৯

অ্যাকাউন্টিং

দৌড়ের ওপরে থাক
মহাসাগরীয় স্রোত।
আমি শান্ত নদী, অসভ্য পাথরে প্রাণ
খুঁজে খুঁজে হয়রান পাখি।
কল্পনা বিলাসে
আঠারো ক্যারট সোনা যেভাবে বাইশ
দামের হেরফেরে—
কার্বনের মারপ্যাচে কয়লার হীরে হয়ে ওঠা
অথবা প্রত্যাবর্তন।
মুদ্রানীতির হিসাব-নিকাশে
কখনও আরব্য ঘোড়া
ভারতীয় গরু
অথবা
ইউরোপীয় ইঁদুর।
তোমরা যারা আমাকে ইস্পাত ভাবো
হয়তো জানো না—
আমি সামান্য কথাতেই গলে যাই।

বিপ্লব

একটা বিপ্লব শেয়ার করার মতো
টাকা নেই আমার কাছে!
এটা বলার পর নেতা জিজ্ঞাসা করলেন—
টাকা কি শুধু নিজেই জ্বলে
নাকি অন্যকে জ্বলতেও সাহায্য করে?
বিপ্লবের সাথে শুধু দাহ্যের সম্পর্ক
আগুন! আগুন!
আর যারা ম্যাচবাক্সের মতো
পোষা আগুন পকেটে নিয়ে ঘোরে
তারা তো দালাল।
মশাল দেখে ভয় পাওয়া ছাই।

দেয়াশলাই

একটি দেয়াশলাই
পোষ মানা বারুদের ফোঁটা;
দাহ্য কিন্তু দাবানল নয়।

এমন নিয়ন্ত্রিত দিনে গৃহপালিত বিপ্লব—

তুমি বলছো, পরিত্যক্ত জমিতেই
আলু দিয়ে রেখেছে সবাই।
শুধু আগুনের অপেক্ষায়
বেহায়া অক্সিজেন—
নিজেই জ্বলছে, অন্যকে জ্বালাচ্ছে না।

ধারাবাহিক